৫ জুন থেকে শুরু হচ্ছে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন


আপডেটের সময়ঃ জুন ৩, ২০২১


জাতীয় ভিটামিন ‘এ’প্লাস ক্যাম্পেইন শনিবার (৫ জুন) থেকে শুরু হতে যাচ্ছে, যা ১৯ জুন পর্যন্ত চলবে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে এ কার্যক্রম চলবে।

শনিবার (৫ জুন) চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী মেমন মাতৃসদন হাসপাতালে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন।

এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে কর্পোরেশন পরিচালিত মেমন জেনারেল হাসপাতালে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে ভিটামিন ক্যাম্পইনে কর্পোরেশন সামগ্রিক প্রস্তুতি নিয়ে প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডা. মোহাম্মদ আলী, ডা. ইমাম হোসেন রানা, ডা. রফিকুল ইসলাম, ডা. তপন কুমার চক্রবর্ত্তী, ডা. হাসান মুরাদ চৌধুরী, ডা. সুমন তালুকদার, ডা. আপিল মাহামুদ রাসেল, ডা. জহুর মহাজন।ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী বলেন, ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পইনে নিয়োজিত নিয়মিত ও নির্বাচিত স্বাস্থ্যকর্মীর কোভিড স্ক্রিনিং করে মাস্ক পরিধান ও সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবেন। এক্ষেত্রে অভিভাবকদেরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে টিকা কেন্দ্রে আসতে হবে। সাধারণত নির্ধারিত ইপিআই সিডিউল অনুযায়ী প্রতিটি ওয়ার্ডে ৮টি সাব ব্লকে ২ দিন ইপিআই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এই দিন ছাড়া বাকি ৪ দিন ইপিআই কেন্দ্রে পর্যায়ক্রমে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি শিশুদের নিয়ে আসা অভিভাবকদের সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে। ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রতিটি শিশুকে ১টি নীল ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রতিটি শিশুকে ১টি লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম বিরতিহীনভাবে চলবে। সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া অবলোকনে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা প্রদানে মনিটরিং টিম কাজ করবে। কর্মসূচির উপলক্ষ্যে স্থানীয় পত্রিকাসমূহে অভিভাবকদের কাছে বার্তা পৌঁছনো ও সচেতন করতে পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি ওয়ার্ডেও পর্যায়ক্রমে মাইকিং করা হবে। আশাকরি প্রতিবারের ন্যায় এবারও ভিটামিন ‘এ’প্লাস ক্যাম্পইন কর্মসূচি সফল হবে।

এদিকে হাম, ডায়রিয়া, রাতকানাসহ সব ধরনের রোগ থেকে বাঁচাতে ৬-৫৯ মাস বয়সী শিশুদের আগামী ৫ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল। বৃহস্পতিবার বিকালে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, আগামী ৫ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত  সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত  এ কার্যক্রম চলবে। শুধুমাত্র সাপ্তাহিক ছুটির ২ দিন টিকা কর্মসূচি বন্ধ থাকবে। নগর ও জেলা মিলিয়ে সর্বমোট ১২ লাখ ৯৭ হাজার ৮১৫ জনকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এদের মধ্যে নগরের ৪১ ওয়ার্ডে ৫ লাখ ১০ হাজার ৩১ জন এবং ১৫টি উপজেলায় ৭ লাখ ৮৭ হাজার ৭৮৪ জন শিশুকেও এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন অফিসের (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. নুরুল হায়দার, জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধয়ক সুজন বড়ুয়া, স্বাস্থ্য পরিদর্শক (পটিয়া) অলক দাশসহ প্রমুখ।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।