“সাম্প্রদায়িক অপশক্তির কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না”

চট্টগ্রাম কেন্দ্রিয় ইসকন রথযাত্রায় সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী

আপডেটের সময়ঃ জুলাই ১, ২০২২

জনগন যার যার ধর্ম পালন করবে। অন্যের ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত দেওয়ার অধিকার কারও নেই। এই দেশের সাম্প্রদায়িক শক্তিকে যারা পৃষ্টপোষকতা  করবে তাদেরকে শক্ত হাতে মোকাবেলা করা হবে। এই দেশ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ। এই দেশে সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেত্বতে এই দেশ পরিচালিত হবে। আজ সেই আর্দশ হচ্ছে ধর্মে ধর্মে কোন হানাহানি থাকবে না। দেশের সকল নাগরিক সমান অধিকার পাবে । যারা সাম্প্রদায়িক উসকানি দিচ্ছে তদন্ত করে তাদের  বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১ জুলাই শুক্রবার নন্দনকানন শ্রীশ্রী রাধামাধব মন্দির ও গৌর নিতাই আশ্রম সম্মুখে ডিসি হিল প্রাঙ্গণে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) চট্টগ্রাম আয়োজিত বিশাল ২৫তম কেন্দ্রিয় রথযাত্রার রজতজয়ন্তীতে ধর্মীয় মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

রথযাত্রায় মহান আশির্বাদক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসকনের হেডকোয়ার্টার ভারতের মায়াপুর হতে আগত ইসকনের অন্যতম সন্যাসী শ্রীমৎ অমিয় বিলাস স্বামী মহারাজ, ইসকন বাংলাদেশের সিনিয়র সহসভাপতি শ্রীমৎ ভক্তিপ্রিয়ম্ গদাধর গোস্বামী মহারাজ। ভারতের মায়াপুর সংকীর্তন ও প্রচার বিভাগের পরিচালক শ্রীমৎ ভক্তি বিজয় ভাগবত স্বামী মহারাজ। নন্দনকানন ইসকন মন্দিরের অধ্যক্ষ পন্ডিত গদাধর দাস ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে ও সুমন চৌধুরীর সঞ্চালনায় উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী ভারতীয় হাইকমিশনার ডাঃ রাজিব রঞ্জন।

ডাঃ রাজিব রঞ্জন বলেন, ইসকন প্রতিষ্ঠাতা আচার্য শ্রীল  অভয়চরণারবিন্দ ভক্তিবেদান্ত স্বামী প্রভুপাদ এই রথযাত্রার বিশ্বায়ন এক চমৎকার ভূমিকা পালন করেন। ইসকনের বিভিন্ন কার্যক্রম সারাবিশ্বে প্রশংসিত আমি এতে গর্ববোধ করি।

নন্দনকানন ইসকন মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক তারণ নিত্যানন্দ দাস ব্রহ্মচারীর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রিয় সভাপতি সুকুমার চৌধুরী, চট্টগ্রাম ইসকনের বিভাগীয় সম্পাদক চিন্ময়কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী । বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার জনাব আশরাফ উদ্দিন, পুলিশ কমিশনার জনাব সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ মমিনুর রহমান, বাংলাদেশ জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের কেন্দ্রিয় সাধারন সম্পাদক প্রকৌশলী প্রবীর সেন, হিন্দু কল্যান ট্রাষ্টের ট্রাষ্টি উত্তম শর্মা, চট্টগ্রাম মহানগর হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নিতাই প্রসাদ ঘোষ, জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের কেন্দ্রিয় সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট চন্দন তালুকদার, চট্টগ্রাম পেশাজীবি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ হায়দার চৌধুরী,  বাংলাদেশ হিন্দু ফাউন্ডেশনের প্রাক্তন চেয়ারম্যান দিলীপ মজুমদার, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক চৌধুরী ফরিদ, রাজনীতিবিদ জনাব হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর, মহানগর পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি লায়ন আশিষ ভট্টাচার্য, কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর জনাব সলিমুল্লাহ বাচ্চু, কাউন্সিলর পুলক খাস্তগীর, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথী চৌধুরী, সাবেক কেন্দ্রিয় যুবলীগের সদস্য দেবাশীষ পাল দেবু, মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ, মহিলা কাউন্সিলর রুমকী সেনগুপ্ত, মহানগর পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক বনগোপাল চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ইস্কন মোহরা মন্দির অধ্যক্ষ সর্বমঙ্গল গৌর দাস ব্রহ্মচারী, নন্দনকানন ইস্কন মন্দিরের সহ সভাপতি অকিঞ্চন গৌর দাস ব্রহ্মচারী, যুগ্ম সম্পাদক মুকুন্দ ভক্তি দাস ব্রহ্মচারী, বলরাম করুনা দাস, সুবল সখা দাস ব্রহ্মচারী, শেষরুপ দাস ব্রহ্মচারী, অপূর্ব মনোহর দাস ব্রহ্মচারী প্রমুখ।

ঐতিহ্যবাহী মহাশোভাযাত্রা নন্দনকাননস্থ শ্রী শ্রী রাধামাধব মন্দির সম্মুখে ডিসি হিল প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে নন্দনকানন গৌর নিতাই আশ্রমে এসে শেষ হয়।  মহাশোভাযাত্রায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে লক্ষাধিক ভক্তবৃন্দসহ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীবৃন্দ ব্যানার, প্লেকার্ড, ফেস্টুন, পৌরাণিক সাজ ও বাদ্যযন্ত্র নিয়ে যোগদান করেন। উল্লেখ্য যে ৮ জুলাই উল্টো রথযাত্রা নন্দনকানন গৌর নিতাই আশ্রম  হতে শুরু করে উল্টো পথে নন্দনকানন শ্রীশ্রী রাধামাধব মন্দিরে এসে শেষ হবে।

নিউজ ডেস্ক।

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।