সরকারি বিধিনিষেধ মানুন, প্রয়োজনে আরো আইসোলেশন সেন্টার হবে: মেয়র

ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন

আপডেটের সময়ঃ জুন ৩০, ২০২১

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো.রেজাউল করিম চৌধুরী নগরবাসীকে বৃহস্পতিবার থেকে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন কর্মসূচী পালনে নিজের সুরক্ষার স্বার্থে শতভাগ মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সংক্রমণ বাড়া স্বত্বেও আমাদের মধ্যে করোনা নিয়ে এখন ভীতি কেটে গেছে। এই প্রবণতা ভাল নয়। ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণও নগরবাসীকে সচেতন করতে সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে সচেতনতায় লিফলেট বিলির পাশাপাশি মাইকিং করা হবে। প্রয়োজনে আরো আইশোলেসান সেন্টার স্থাপন করা হবে।

বুধবার (৩০ জুলাই) দুপুরে নগরীর টাইগারপাসস্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরশেন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম কমিটির তৃতীয় সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

কর্পোরেশেনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.সেলিম আকতার চৌধুরীর সঞ্চলনায় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরশেনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলম, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, কাউন্সিলর ড.নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, শাহেদ ইকবাল বাবু, সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) এ.এস.এম জামশেদুল খন্দকার, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. রাজীব পালিত প্রমুখ।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা.হাসান শাহরিয়ার কবির বলেন, আমাদের এবার যে কোনভাবে সরকারি নির্দেশনা মানতে হবে। না হয় বিপদের সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি বলেন গতকালও চট্টগ্রাম বিভাগে ১৫ জনের মতো মৃত্যুবরণ করেছে। আজ (৩০ জুন) সংক্রমণের হারও ২৯ শতাংশ। কাজেই অযথা ঘুরাঘুরি বন্ধ করা ও মাস্ক পরিধানের বিকল্প আর কোন পথ নাই। ডা. হাসান শাহরিয়ার কর্পোরেশন স্থাপিত আইসোলেশান সেন্টার ভাল ভূমিকা রাখছে বলে উল্লেখ করেন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক নগরবাসীকে সাবধানতা অবলম্বনের পাশাপাশি আতংকিত না হওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, আমাদের কাছে এখনো পর্যাপ্ত অক্সিজেন সংগ্রহ আছে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরশেনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলম বলেন আমাদের দায়িত্ব হলো সরকারি নির্দেশনা পালন ও বাস্তবায়ন করা। তবে কর্পোরেশনকে নগরবাসীর স্বার্থে জরুরি সেবা সমূহ চালু রাখতে হবে। যেমন নগরের স্বাস্থ্যসেবা ও পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম।

কর্পোরেশেনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.সেলিম আকতার চৌধুরী সাবেক মেয়র মনজুর আলম তাঁর প্রতিষ্ঠান আলহাজ মোস্তফা হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে নগরীর গুরুতর কোভিড রোগীদের চিকিৎসার জন্য বিনামূল্যে কর্পোরশেনের স্বাস্থ্য বিভাগকে অক্সিজেন সরবরাহ করতে চায় বলে অভিহিত করেন।

সভাপতির বক্তব্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ রেজাউল করিম চৌধুরী আরো বলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরশেনের স্বাস্থ্যবিভাগ করোনার টিকা প্রদানের ক্ষেত্রে বেশ সাফল্য দেখিয়েছে। টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হলে আবারো তারা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবেন এটা আমার প্রত্যাশা।

মেয়র করোনাকালে নগরবাসীর চিকিৎসার সহায়তা একটি হটলাইন নাম্বার চালু আছে বলে জানান। হটলাইন নম্বর হল (৬৩৪৫৮৪)। তিনি নগরীর করোনা রোগীদের প্রয়োজনে কর্পোরেশনের চালু থাকা লালদিঘী পাড়ে স্থাপিত আইসোলেশন সেন্টার থেকে চিকিৎসা নেয়া যাবে উল্লেখ করেন। এখানে পর্যাপ্ত চিকিৎসক, নার্স ও স্টাফ সহ এম্বুলেন্স সার্ভিস, রোগীদের বিনামূল্যে খাবার ও ওষুধের ব্যবস্থা রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। কাজেই নগরবাসীকে কোন ধরণের আতংকিত না হয়ে নিজে ও অপরের সুরক্ষা নিশ্চিত করে চলতে আহ্বান জানান।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।