বিদেশে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে চলেছে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক


আপডেটের সময়ঃ ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১


বিদেশের উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন অনেক শিক্ষার্থীর। তবে সবার তা পূরণের সুযোগ থাকে না। নামি-দামি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাওয়ার যোগ্যতা থাকলেও সামর্থ্য থাকে না। টিউশন ফি, থাকার খরচসহ নানা প্রতিবন্ধকতায় থেমে যায় সে স্বপ্ন। বিশেষ করে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে অর্থ হয়ে উঠে প্রধান বাঁধা। তবে সেই বাঁধা অনায়াসেই দূর হয়ে যায় একটি উপযুক্ত স্কলারশিপ পেয়ে গেলেই। অনেকেই জানেন না শিক্ষার্থীদের বিদেশে পড়ার স্বপ্ন পূরণ করার জন্য বিভিন্ন স্কুল, কলেজ এবং ইউনিভার্সিটি  স্কলারশিপ প্রদান করে থাকেন। শিক্ষার্থীদের শুধু নিজেদের যোগ্যতা প্রমান করে ছিনিয়ে নিতে হয় সেই সুযোগ আর তারপরেই কম খরচে সামনে খুলে যায় বিদেশে উচ্চশিক্ষা অর্জনের সম্ভাবনার দুয়ার। বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক একেবারে স্বল্প খরচে শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন। এ লক্ষ্যে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের  বন্দর নগরী চট্টগ্রামে দুইদিন ব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল হায়ার এডুকেশন এক্সপো-২০২১ আয়োজন করেছেন। মহানগরীর জিইসি মোড় চার তারকা হোটেল পেনিনসুলায় বুধবার এবং বৃহস্পতিবার সম্পন্ন হয়। দুই দিনব্যাপী এই এক্সপোতে বিদেশে উচ্চশিক্ষাগ্রহণে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে প্রাণবন্ত হয়ে উঠে। শিক্ষার্থীদের সরব উপস্থিতির কারণে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের কর্মকর্তাদের সেবা প্রদানের মনোভাব বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণ। এক্সপোতে এইচএসসি পাস শিক্ষার্থীর পাশাপাশি প্লে থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের উপস্থিতিও ছিল লক্ষণীয়।

বি এস বি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের অভিজ্ঞ কাউন্সিলররা আগ্রহী শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সকল ধরনের তথ্য দিয়েছেন। গত বুধবার প্রথম দিন ছিল বিদেশে উচ্চশিক্ষাগ্রহণে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি লক্ষণীয়। ওই দিন উপস্থিত  শিক্ষার্থীদের গ্লোবাল নেটওয়ার্কের কর্মকর্তারা বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা তুলে ধরেন। বিশেষ করে  ডকুমেন্ট অ্যাসেসমেন্ট এর সুবিধা ফ্রি, ৫০% পর্যন্ত স্কলারশিপ সুবিধা, সার্ভিস চার্জ ১০০% ফ্রি, ইউনিভার্সিটির প্রতিনিধিগনের সাথে সরাসরি কথা বলার সুযোগ, এক্সপোতে যারা ফাইল ওপেন করেছে তাদের জন্য ফ্রি ৭ দিনের  অনলাইন আই এল টি এস ক্রাশ কোর্সের সুযোগ, ক্রেডিট ট্রান্সফারের সুবিধা, এক্সপোতে বিদেশে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে যারা ফাইল ওপেন করেছে লটারির মাধ্যমে তাদের জন্য আকর্ষণীয় পুরস্কার, শিক্ষার্থীর সাথে অভিভাভকগন ও বিদেশে যেতে পারবেন বলে জানানো হয়।

এক্সপোতে আগত এক শিক্ষার্থী বলেন, উচ্চশিক্ষার জন্য আমরা বিশ্বের উন্নত দেশগুলোয় যেতে চাই। শিক্ষায় উন্নত বলতে গবেষণা, চর্চা, পদ্ধতিগত দিক থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রেই এগিয়ে থাকা। বিশ্বের র‌্যাকিংয়ে এগিয়ে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কে না পড়তে চায়? একই সঙ্গে সবাই চায় একটি ভাল জীবনব্যবস্থা। আমার স্বপ্ন ছিল, বিদেশে একটা ভালো ইউনিভার্সিটিতে পড়ব।  স্বপ্নপূরণে এক্সপোতে এসেছি। আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ওয়ার্ল্ড রেন্কিং এ এগিয়ে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নিতে উন্নত দেশগুলো যে কোন স্বাধীন রাষ্ট্রের নাগরিককে অবারিত সুযোগ করে দিচ্ছে। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরাও উচ্চশিক্ষার জন্য পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে গবেষণা সমৃদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছুটে চলেছেন। বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশিদের অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে। তাই এক্সপোতে এসেছি।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনেও শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মত। এ দিনও গ্লোবাল নেটওয়ার্কের কর্মকর্তাদের আগ্রহী শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সকল ধরনের তথ্য ও সহায়তা দিয়েছেন। গতকাল উপস্থিতি শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চ শিক্ষা প্রয়োজনীয় তথ্য ও সুযোগ সুবিধার কথা জানানো হয়।

এছাড়া দুইদিন ব্যাপী এই এক্সপোতে বি এস বি গ্লাবাল নেটওয়ার্কের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরষ্কার হিসেবে আই ই এল টি এস এর বই তুলে দেন বি এস বি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার আবু জাহিদ, বিএসবি গ্লোবাল নেট ওয়ার্কের ম্যানেজার মাহমুদা আক্তার প্রমূখ।

বি এস বি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার আবু জাহিদ বলেন, বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ শিক্ষার্থীদের মনের মধ্যে গেথে রাখা ওই স্বপ্ন যেন প্রতিবন্ধকতায় থেমে না যায়, সে লক্ষ্যেই আকর্ষণীয় কম খরচে উচ্চশিক্ষা অর্জনের সুযোগ করে দিচ্ছে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক। তিনি জানান, বলা যেতে পারে, মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় পরতে হয়। মূলত শিক্ষার্থীদের জন্য আমাদের কার্যক্রম অনেক বড় সুযোগ করে দেবে।

বিএসবি গ্লোবাল নেট ওয়ার্কের ম্যানেজার মাহমুদা আক্তার বলেন, প্রতিটি বিষয়ে আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষকগন ছাত্রছাত্রীদের মানসম্মত পাঠদান করে থাকেন। আমাদের নিজস্ব উপকরণ ও সরাঞ্জামাদির মাধ্যমে বাস্তবসম্মত ব্যবহারিক পাঠদান করা হয়। ফলে শিক্ষার্থীরা পুরোপুরি উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে সক্ষম হন। নিজস্ব ক্যাম্পাসে আধুনিক মানের ভবন রয়েছে আমাদের। যেখানে শিক্ষার্থীরা মনোরম পরিবেশ শিক্ষাগ্রহণ করতে পারছেন। এয়ারওয়েজের ফ্লাইটের ব্যবস্থাও রয়েছে। তাই শিক্ষার্থীরা কোনো ধরনের সমস্যায় পড়বেন না। তাদের গুণগত মানসম্মত পাঠদানের উদ্দেশ্যেই এ প্রতিষ্ঠানের পথ চলা।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।