পাহাড় ধসে যাতে আর কোনো মৃত্যু না হয়: চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার

মতিঝর্ণা এলাকায় পাহাড় পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি

আপডেটের সময়ঃ জুন ৯, ২০২১

চট্টগ্রামে নবনিযুক্ত বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান বলেছেন, কীভাবে পাহাড় রক্ষা করা যায়, পরিবেশ রক্ষা করা যায় এবং পাহাড়ে যারা বসবাস করছে কিভাবে তাদের জীবন রক্ষা যায় সেসব মতামত নেব। এজন্যই আমরা পাহাড় দেখে যাচ্ছি। পরে বসে একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘স্থায়ীভাবে পাহাড় থেকে স্থাপনা উচ্ছেদ করতে হলে আগে জায়গার মালিকানা নির্ধারণ করতে হবে। মালিকানা নিয়ে যেহেতু সমস্যা আছে, আদালতে রিট ও মামলা আছে তাই মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আমরা কোনো কিছুই করতে পারব না। যেসব পাহাড় নিয়ে আদালতে মামলা আছে সেগুলোর বিষয়ে আদেশের পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আর যেগুলোতে ঝামেলা নেই সেগুলোতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় লালখানবাজার মতিঝর্ণা এলাকায় পাহাড় পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। বিভাগীয় কমিশনার আরও বলেন, পাহাড় রক্ষা ও অবৈধ বসতিদের কীভাবে স্থায়ীভাবে সমস্যা সমাধান করা যায় তা দেখার জন্য এসেছি। যাতে করে বাস্তবতা দেখে সরকারের কাছে একটি প্রস্তাবনা দিতে পারি। যাতে করে একই ঘটনা বারবার না ঘটে। আগে পাহাড় ধসে অনেক লোক মারা গেছে। এভাবে যেন আর কোনো মৃত্যু না হয়।

জানা গেছে, বর্ষার এলেই চট্টগ্রামে প্রশাসনের তোড়জোড় শুরু হয় পাহাড়ের ঝুঁকিপূর্ণ বসতি নিয়ে। এ নিয়ে প্রতিবছরই অস্থায়ী ব্যবস্থা নিয়েই প্রশাসন দায়িত্ব শেষ করলেও এবার নেয়া হচ্ছে স্থায়ী সিদ্ধান্ত। নগরের এসব পাহাড়ের পরিবেশ ও বাসিন্দাদের জীবন স্থায়ীভাবে ঝুঁকিমুক্ত করতে চায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

ঝুঁকির্পূণ পাহাড় পরিদর্শনের সময় বিভাগীয় কমিশনার সাথে ছিলেন জেলা প্রশাসক মুমিনুর রহমান। তিনি বলেন, গত রোববার আমরা ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে বসবাসকারীদের সরিয়ে আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে গিয়েছিলাম। তখন প্রায় দেড়শ পরিবার সরানো হয়েছিলো। অনেক খালি ঘরে তালা দেওয়া হয়েছে। যারা এখনো ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে অবস্থান করছে তাদেরকে না থাকার জন্য বলা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ঘর উচ্ছেদ করে কাউকে রাস্তায় ফেলে দেওয়া আমাদের উদ্দেশ্য নয়। আমাদে উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি নাগরিককে রক্ষা করা, তাদেরকে সুরক্ষা করা। কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের নামিয়ে নেওয়া আমাদের দায়িত্ব। আমরা কোন মৃত্যু চাইনা।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।