তপুর ‘মানবিক’ উদ্যোগ: নিম্নবিত্তদের জন্য ফ্রি সবজি, মুদি পণ্য, চিকিৎসা সেবা


আপডেটের সময়ঃ মে ১৬, ২০২১


করোনা মহামারীতে চার নিকট আত্মীয়কে হারিয়েও অসহায় মানুষদের উপহার সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তোছাদ্দেক নুর চৌধুরী তপু।

রোববারও দূর্বার প্রজন্ম ক্লাবের ব্যবস্থাপনায় ত্রাণ বিতরণ করেছেন এই তরুণ সমাজকর্মী।

দেশে করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে ভিন্নধর্মী ‘মানবিক’ উদ্যোগ নিয়ে মাঠে নামে এই সমাজ কর্মী অসহায়, খাদ্যাভাবে কষ্টে থাকা নিম্নবিত্ত মানুষ ও চিকিৎসা বঞ্চিত মানুষের পাশে রয়েছেন। সৃষ্টি করেন নতুন নতুন কনসেপ্ট। লকডাউনের কারনে মানুষ যখন গৃহবন্দি, যানচলাচল সীমিত, পর্যাপ্ত সরবরাহের অভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়তে থাকে, তখন তপুর চালু করেন বিনামূল্যে সবজি বাজার। পাঁচটি ভ্যানগাড়ি ভর্তি সবজি নিয়ে নগরে ঘুরে ঘুরে বিনামূল্যে দেয়া হয় নানান রকম সবজি। এছাড়া করোনা মহামারিতে  শ্রমজীবী মানুষের জন্য চালু করেন ‘বিনামূল্যে মুদির দোকান’। প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত চালু রাখা এই বিনামূল্যের মুদির দোকানে যে কেউ ৫ কেজি পণ্য কিনতে পারছেন। অন্যদিকে করোনা প্রতিরোধে ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ‘পুষ্টি গাড়ি’ যাবে আপনার বাড়ি এই শ্লোগানকে ধারণ করে চালু করেন ‘ফ্রি পুষ্টি গাড়ি’। এসব গাড়িতে বিভিন্ন ফলমূল ও সবজি বিনামূল্যে বিতরণ করা হয় নগরের বিভিন্নস্থানে। অন্যদিকে ‘ডাক্তার যাবে আপনার বাড়ি: আসুন সচেতন হই, করোনা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ি’- এ শ্লোগানকে সামনে রেখে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেন তিনি।

করোনা মহামারিতে যখন সাধারণ মানুষ আতঙ্কগ্রস্থ অনেক ডাক্তার যখন চেম্বারে রোগী দেখা বন্ধ করে দেয় ঠিক তখনই রোগীর বাড়িতে গিয়ে শত শত মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করে ডা. মাসুদ আলমের নেতৃত্বে গঠিত মেডিকেল টিম। ছিন্নমূল ও পথ শিশুদের জন্য ঈদ আনন্দময় করতে বিনামূল্যে পোশাক বিতরণ করেন তিনি। ফলে ছিন্নমূল পথ শিশুরাও ঈদ আনন্দ উপভোগ করার সুযোগ পায়। এছাড়াও প্রতিদিন ডোর টু ডোর জীবাণুনাশক স্প্রে, মাস্ক, হ্যান্ড-স্যানিটাইজারসহ শত শত মানুষের কাছে খাবারও বিতরণ করছেন তিনি।

তোসাদ্দেক নুর চৌধুরী তপু বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করছি। কোন মানুষ বিপদে পড়লে বসে থাকতে পারি না। যতটুকু সার্মথ্য আছে তা নিয়ে বিপদগ্রস্থ’ মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করি। আমাদের তরুণপ্রজন্মের অহংকার শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ভাইয়ের উৎসাহ ও দিক নির্দেশনায় আমাদের উদ্যোগকে আরো বেগবান করি। সাথে অনেক সহযোদ্ধাও এগিয়ে আসে। এ কার্যক্রমে সহায়তা দিয়ে আসছেন স্থানীয় ছাত্রলীগ সোহেল বড়ুয়া, মুনতাসির শফি, ফয়জুল আমিন ফয়সাল, আবরারুল আলম রাফি, হাসান রাজা, ইমরান হোসেন ইমন ও সাহেদ।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।