চলে গেলেন তারেক সোলায়মান সেলিম


আপডেটের সময়ঃ জানুয়ারি ১৮, ২০২১


সবাইকে শোক সাগরে ভাসিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশনের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিম।

সোমবার (১৮ জানুয়ারী) দুপুর ২টায় ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার ডেলটা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন বলে জানান স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য মোহাম্মদ বোখারী আজম।

তিনি বলেন, বিদেশে থেকে ফিরিয়ে এনে ঢাকার ওই হাসপাতালে তারেক সোলেমান সেলিমের চিকিৎসা চলছিল। মঙ্গলবার দুপুর ২টায় চট্টগ্রাম পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন চত্বরে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

আলকরণ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোহাম্মদ ছালেহ্ এর ছেলে তারেক সোলায়মান সেলিম স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েন। সেই থেকে বিরোধী পক্ষের শত অত্যাচার-নির্যাতন সহ্য করেও তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ থেকে বিচ্যুতি হননি।

এদিকে  সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রাম-৯ আসনের সংসদ সদস্য ও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। শোকবার্তায় শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, তারেক সোলেমান সেলিম স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, বিএনপি-জামায়াত জোট বিরোধী আন্দোলনসহ দুঃসময়ে আওয়ামী পরিবারের একজন সাহসী সৈনিক ছিলেন। তিনি বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামে তারেক সোলেমান সেলিমের অগ্রণী ভূমিকা চট্টগ্রামের মানুষ আজীবন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। তার মৃত্যুতে আওয়ামী পরিবারের যে ক্ষতি হয়েছে তা কখনো পূরণ হওয়ার নয়। শিক্ষা উপমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অন্যদিকে স্বৈরাচার বিরোধীসহ গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে লড়াকু সাবেক ছাত্রনেতা ও ৩১নং আলকরণ ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী গণআন্দোলনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তারেক সোলেমান যে ভূমিকা রেখেছেন, তা দেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। তারেক সোলেমান শুধু রাজনৈতিক কর্মী ছিলেন না। ছিলেন দক্ষ সংগঠকও। তার হাতে গড়ে উঠে শিশু কিশোরদের সংগঠন খেলাঘর। এরকম একজন প্রগতিশীল রাজনৈতিক কর্মীর অকাল প্রয়াণ দেশের গণতান্ত্রিক রাজনীতির বিকাশে অপূরনীয় ক্ষতি। যা সহজে পূরণ হবার নয়। প্রশাসক মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ও তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন আলহাজ্ব তারেক সোলায়মান সেলিমের মৃত্যুতে গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক অঙ্গণে অপূরণীয় শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। এক শোক বার্তায় বলা হয়, সদ্য প্রয়াত তারেক সোলায়মান সেলিম একজন আপাদমস্তক ও নির্মোহ রাজনীতিক। তিনি রাজনীতিকে কখনো অর্থবিত্তের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেন নি। দলের সকল স্তরের নিবেদিত প্রাণ নেতাকর্মীদের সাথে তার নিবিড় সখ্যতা ছিল। তাই তাঁর অভাব কখনো আমরা মুছতে পারবো না। তিনি দলের নিবেদিত প্রাণ নেতাকর্মীদের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। শোকবার্তায় প্রয়াত তারেক সোলায়মান সেলিমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও তাঁর শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করা হয়।

চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য ৩১নং আলকরণ ওয়ার্ডের সাবেক চারবারের নির্বাচিত সফল কাউন্সিলর আলহাজ্ব তারেক সোলায়মান সেলিমের মৃত্যুতে গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক অঙ্গণে অপূরণীয় শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। আজ প্রদত্ত এক শোক বার্তায় বলা হয়, সদ্য প্রয়াত তারেক সোলায়মান সেলিম একজন আপাদমস্তক ও নির্মোহ রাজনীতিক। তাই তাঁর অভাব কখনো আমরা মুছতে পারবো না। তিনি দলের নিবেদিত প্রাণ নেতাকর্মীদের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। শোকবার্তায় প্রয়াত তারেক সোলায়মান সেলিমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও তাঁর পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করা হয়।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।