চমেক হাসপাতাল এলাকায় এম্বুলেন্স চালকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় বন্ধের দাবি


আপডেটের সময়ঃ মার্চ ২৮, ২০২১


চমেক হাসপাতাল এলাকায় বহিরাগত কর্তৃক এম্বুলেন্স ও মাইক্রো চালকদের কাছ থেকে জোর পূর্বক চাঁদা আদায় বন্ধের দাবি জানিয়েছেন একটি সংগঠন । একই সাথে এসব চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও দাবি জানানো হয়।

চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগ পাঁচলাইশ থানা শ্রমিক লীগের  উদ্যোগে চমেক হাসপাতালের পূর্ব গেইটে রোববার (২৮ মার্চ) বিকেল ৩ টায় মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

পাঁচলাইশ শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. শাহাদাৎ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক, ওয়াসা সিবিএ’র সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কামান্ডার নুরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, চমেক হাসপাতালে বৃহত্তর চট্টগ্রামের মানুষ চিকিৎসাসেবা নিয়ে থাকে। হাসপাতাল এলাকায় বহিরাগত কিছু সন্ত্রাসী নীরবে এম্বুলেন্স ও মাইক্রো চালকদের থেকে জোর পূর্বক চাঁদা আদায় করে আসছে। কিছুদিন আগে শ্রমিক লীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেনকে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে চাঁদা আদায় করে। এ ব্যাপারে পাঁচলাইশ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে তাকে উল্টো চাঁদাবাজি মামলায় কারাগারে প্রেরণ করে বহিরাগতরা। এছাড়া গত ২৬ মার্চ গাড়ি চালক মো. মনিরের নিকট চাঁদা দাবি করলে দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে মারধর করা হলে এখনো  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ বিষয়ে বাহিরাগত মোশাররফ, সান্টু ও নুরুসহ  চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশ প্রশাসনকে অনুরোধ জানানো হয়।

জাতীয় শ্রমিক লীগ বাকলিয়া থানার সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ রাশেদ সোলেমানের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের মহানগরের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো. মনির হোসেন, কোতোয়ালীর সাধারণ সম্পাদক মো. নুর হোসেন বুলু, পাঁচলাইশের সাধারণ সম্পাদক মো. খোরশেদ আলম, সহ-সভাপতি মো. বেলাল, মো. আবছার প্রমূখ।

নিউজ ডেস্ক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।