চট্টগ্রামে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় জরিমানা গুনল ৪ ফার্মেসি


আপডেটের সময়ঃ সেপ্টেম্বর ৬, ২০২০


চট্টগ্রাম মহানগরের চারটি ফার্মেসিকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

রোববার (৬ সেপ্টেম্বর ) নগরের বায়েজিদ ও আকবরশাহ থানা এলাকায় নিয়মিত তদারকিমূলক অভিযানে এসব জরিমানা করা হয়।

 অভিযানে নেতৃত্ব দেন অধিদফতরের বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ, সহকারী পরিচালক (মেট্টো) পাপীয়া সুলতানা লীজা ও জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। মেয়াদোত্তীর্ণ, অননুমোদিত, কাটা ওষুধ সংরক্ষণ ও মোড়কে মুদ্রিত মূল্য মুছে দেওয়ায় এ জরিমানা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এছাড়া আরেফিন নগর এলাকার মক্কা স্টোরকে উৎপাদন, মেয়াদবিহীন পণ্য, অননুমোদিত রং, হাইড্রোজ, তেলাপোকাযুক্ত ময়দা রাখায় ১০ হাজার টাকা জরিমানাসহ বর্ণিত পণ্য ধ্বংস করা হয়। খন্দকার স্টোরকে প্যাকেটজাত মসলাতে মেয়াদ, উৎপাদন তারিখ না থাকা এবং নিত্যপণ্যের মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় ৩ হাজার টাকা জরিমানাসহ সতর্ক করা হয়। মায়ের দোয়া সততা স্টোরকে অননুমোদিত রং রাখায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আকবরশাহ থানার ফকির হাটের সিরাজ স্টোরকে  মেয়াদোত্তীর্ণ দই, বিস্কুট সংরক্ষণ করা এবং জন্মদিনের কেক, মিষ্টি ইত্যাদিতে উৎপাদন তারিখ, মেয়াদ না থাকায় ৮ হাজার টাকা জরিমানাসহ ধ্বংস করা হয়।

মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানান, বায়েজিদ থানার আরেফিন নগরের আলম মেডিক্যাল হলকে ওষুধের মূল্য ঘষামাজা করায় ২ হাজার টাকা, জনসেবা মেডিসিন সেন্টারকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সংরক্ষণ করায় ৩ হাজার টাকা, সেইফ জোন মেডিসিনকে অননুমোদিত যৌন উত্তেজক ওষুধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সংরক্ষণ করায় ২০ হাজার টাকা জরিমানাসহ এসব ওষুধ ধ্বংস করা হয়। সলিমপুর এলাকার ইসলাম ফার্মেসিকে মেয়াদবিহীন কাটা ওষুধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় ১০ হাজার টাকা জরিমানাসহ বর্ণিত ওষুধ ধ্বংস করা হয় বলে তিনি জানান।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।