চট্টগ্রামে বিয়ে ও চাকরির প্রলোভনে ধর্ষণ: গ্রেফতার ৪

গার্মেন্টেসে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়

আপডেটের সময়ঃ জুন ১৬, ২০২১

চট্টগ্রামে বিয়ে ও চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে আটকে রেখে জোর পূর্বক ধর্ষণ করার অপরাধে ৪ জন ধর্ষণকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব সদস্যরা।

মঙ্গলবার বিকেলে বাকলিয়া থানাধীন এলাকা থেকে এই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন,জেলার বাঁশখালী ছনুয়ার মৃত মোহাম্মদ আলীর পুত্র মো.জসিম উদ্দিন (২৭), একই এলাকার -মো. ইজ্জত আলীর পুত্র মো. নুরুল আজিম (২৮), কোতোয়ালী পাথরঘাটার মৃত ফরিদ আহাম্মেদের পুত্র মোঃ. জাবের আহাম্মেদ (৪৮) ও বাঁশখালীর পূর্ব চাম্বলের মো. আবু তাহেরের পুত্র মোহাম্মদ নবী (২২)।

র‌্যাব জানায়, গত ১৩ জুন ভিকটিমের পিতা মো. আরাকান মিয়া র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামে  অভিযোগ করে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র তার মেয়েকে চট্টগ্রাম শহরের ফ্রিপোর্ট এলাকায় একটি গার্মেন্টেসে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। তার মেয়েকে চট্টগ্রামে একটি বাসায় আটক করে রাখে। অতঃপর ঐ বাসায় ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ওই মেয়েকে উদ্ধার ও ধর্ষণকারীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে  ছায়াতদন্ত শুরু করে। পরে র‌্যাব জানতে পারে ধর্ষণকারীরা ভিকটিমকে বাকলিয়া থানাধীন বাকলিয়া নতুন ব্রীজ সেল সেন্টারের সামনে একটি বাসায় আটকে রেখেছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে র‌্যাবের একটি চৌকস আভিযানিক দল উক্ত স্থানে অভিযান চালিয়ে এদের গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা ভিকটিমকে মিথ্যা বিবাহের ও চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে আটকে রেখে জোর পূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণের কথা স্বীকার করে।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।