চট্টগ্রামে পাসপোর্ট অফিসের সামনে অভিযান চালিয়ে ১১ দালাল গ্রেফতার

দুই ভাইকে জিম্মি করে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

আপডেটের সময়ঃ জুন ৯, ২০২১

চট্টগ্রাম মহানগরীতে পাসপোর্টের আবেদন করতে যাওয়া দুই ভাইকে জিম্মি করে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পেয়ে ১১ দালালকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার দুপুর পৌনে একটার দিকে নগরীর পাঁচলাইশের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সামনে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতার ১১ জন পাসপোর্ট অফিসের আশপাশে ঘোরাঘুরি করে। দ্রুত ও সহজে পাসপোর্ট পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে। গ্রেফতার ১১ জন হলেন- সাইফুল হক (৪১), জাকির হোসেন রাজু (৫০), সাইফুল ইসলাম (৫৮), আমিনুল ইসলাম (৫৬), রফিক আহাম্মদ (৪৮), জহির উদ্দিন (৪৮), মোহাম্মদ মিয়া জুনায়েদ (৩৬), মজিবুল হক সোহেল (৪০), আহম্মদ হোসেন (৪৭), জামাল উদ্দিন (৪১) এবং হাজী মো. শফি (৭০)। তাদের সবার বাড়ি চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায়।

পুলিশ জানায়, কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা থেকে সোহেল রানা নামে এক শিক্ষার্থী ও তার বড় ভাই আলী আকবর বুধবার সকালে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পাঁচলাইশের আঞ্চলিক কার্যালয়ে যান। তারা গেটে পৌঁছার পর ২০ থেকে ২২ জন লোক এসে তাদের ঘিরে ধরে। সেখানে যাওয়ার কারণ জানতে চান। তখন সোহেল রানা জানান, তিনি প্রথমবার পাসপোর্ট করবেন এবং তার ভাইয়ের জন্য নতুন পাসপোর্ট বই ইস্যুর আবেদন করবেন। তখন ঘিরে ধরা লোকজন তাদের দ্রুত ও সহজে কাজ করে দেওয়ার কথা বলে ১০ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু, তারা সরকারি নিয়মে আবেদন করবেন জানালে ওই লোকজন মারমুখী হয়ে ওঠেন এবং তাদের বিভিন্নভাবে হেনস্থা করতে থাকেন। একপর্যায়ে আলী আকবরের পকেট থেকে ৫ হাজার টাকা কেড়ে নেন।

পাঁচলাইশ থানার ওসি জাহিদুল কবীর বলেন, সোহেল রানা জটলা থেকে কৌশলে সরে এসে আমাকে ফোন করেন। আমি দ্রুত টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১১ জনকে ধরে ফেলি। এসময় আরও কয়েকজন বিভিন্নভাবে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তাদের কয়েকজনকে তল্লাশি করে মোট ৫৫ হাজার টাকা উদ্ধার করি। এর মধ্যে, আলী আকবরের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া ৫ হাজার টাকাও আছে।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতার সাইদুল হকের কাছ থেকে আবেদনকারী আলী আকবরের আবেদনের কাগজপত্র ও পাঁচ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও, জাকির হোসেনের কাছ থেকে ৯ হাজার ৭০০ টাকা, আমিনুল ইসলামের কাছ থেকে আট হাজার ৩০০ টাকা, জহির উদ্দিনের কাছ থেকে সাড়ে সাত হাজার টাকা, জুনায়েদের কাছ থেকে ১৬ হাজার টাকা এবং জামালের কাছ থেকে সাড়ে আট হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। দ্রুত এবং সহজে পাসপোর্ট পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে তারা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে এসব টাকা হাতিয়ে নিয়েছিল বলে জানায় পুলিশ।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।