চট্টগ্রামে করোনায় প্রাণ গেল আরও এক চিকিৎসকের: সর্বমোট মৃত্যু ২৩ জনের


আপডেটের সময়ঃ মে ৩১, ২০২১


চট্টগ্রামে করোনা পরবর্তী বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় আক্রান্ত হয়ে আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট ২৩ চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন। সদ্যপ্রয়াত ডা. ফরিদুল আলম চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের  পেডিয়াট্রিক বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান। তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৭তম ব্যাচের ছাত্র ছিলেন। ফরিদুল আলমের বাড়ি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায়। বয়স প্রায় ৬৭ বছর।

রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন বলে বিএমএ চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক ডা. মোহাম্মদ ফয়সল ইকবাল চৌধুরী জানিয়েছেন। ফয়সল ইকবাল বলেন, প্রায় দুই মাস আগে তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। মাসখানেক পর নেগেটিভ হন। কিন্তু শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। ফুসফুসের সংক্রমণ বেশি ছিল।

এদিকে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৯ জনের। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৩ হাজার ৩৭০ জন। এসময়ে করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৪ জন।  সোমবার সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

চট্টগ্রামের ৯টি ল্যাবে ৭০২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৮৫টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ১৩৬টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৩৯টি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ১৪৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ৩১ জন, বিআইটিআইডি ল্যাবে ১৫ জন, চমেক ল্যাবে ৯ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ২৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।  এছাড়া শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১০৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ৮ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৩৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জন, জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৪৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৩ জন এবং মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতাল ল্যাবে ৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ১টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। এদিন পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি।  চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ১১৯ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৭০২টি। আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৮২ জন এবং উপজেলায় ৩৭ জন।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।