অবলা প্রাণিদের প্রতি ভিন্নধর্মী প্রেম


আপডেটের সময়ঃ জানুয়ারি ৩, ২০২১


মানুষ অনেক সময়েই কয়েক মুহূর্ত নেয় তাঁর প্রিয় মানুষকে ভুলে যেতে৷ কিন্তু যাদের মানুষ ‘পশু’ নাম দিয়েছে বা যাদের বৃত্তিকে মানুষ ‘পাশবিক’বলে কিন্তু সেই পশুদের সম্পর্কের প্রতি দায়বদ্ধতা নিশ্চিতভাবে চোখে জল এনে দেবে৷ কুকুর অত্যন্ত বিশ্বস্ত সব সময়েই বলা হয়৷ মানুষের অত্যন্ত ভালো বন্ধুও বলা হয় তাদের৷ তাদের বিশ্বস্ততা-ভালোবাসা- প্রভুভক্তির পরিচয় বিভিন্ন সময়ে মানুষ পেয়ে থাকে৷

কুকুর প্রভুভক্ত হওয়ার কারণ কুকুরের জীবন তাঁর প্রভুর (মানুষ) দয়া বা দায় ছাড়া মোটামুটি কষ্টসাধ্য একটা জীবন, এবং কালক্রমে কুকুর যতটা পেরেছে চেষ্টা করেছে নিজের প্রভুদের নিকটে থাকার, এবং এই নিকটে থাকার অভ্যস্ততা এবং প্রয়োজনীয়তা কুকুরের জীবনে এতটাই গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলেছে যে – মানুষ যখন তাঁর প্রিয়, ভালোবাসার, শ্রদ্ধার বা স্নেহের কারো সংস্পর্শে আসার ফলে মানুষের দেহ থেকে তখন যে হরমনাল প্রতিক্রিয়ার ফলে অক্সিটোসিন নির্গত হয়, একই ভাবে কুকুরদের অক্সিটোসিন নির্গত হয় তাঁদের প্রিয় প্রাণ মানুষের সংস্পর্শে আসলে। কিন্তু রাস্তার অবলা কুকুররা তো সেই সান্নিধ্য অনায়াসে পাচ্ছে না। পাচ্ছে না একবেলার আহার, পরিচর্যা, চিকিৎসা ও ভালবাসা। তার উপর বিশ্ব মহামারী, কুকুররা তাদের এক বেলা আহার যোগাড় করতে খাচ্ছে হিমসিম।

সেই করুন অবস্থার কিছুটা লাগব করতে চট্টগ্রামের সদরঘাটে একদল প্রাণিপ্রেমী ব্যাক্তি উদ্যোগ গঠন করেছে প্রাহার-প্রাণিদের জন্য আহার নামের একটা সংগঠন। মিশুক, আনন্দ, ডিউ, পার্থ, তূর্জয়, তনু ও নিতাই এর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গড়ে উঠা এই সংগঠনের সাথে এইবার যোগ দিয়েছে ডবলমুরিং থানার প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ ফেরদৌসী আক্তার।

এইসব অবলা, বেওয়ারিস পথ কুকুরদের সহানুভুতির হাত বাড়িয়ে শুক্রবার বেলা ৩ ঘটিকায় ডাঃ ফেরদৌসী আক্তার একটি ব্যাতিক্রমধর্মী কার্যক্রম গ্রহন করেছেন। টিকা প্রদান, কৃমিমুক্তকরন, শীতকালীন পোশাক প্রদান, চিকিৎসা সেবা প্রদান, গলায় কলার, খাবার সরবরাহ এবং সর্বোপরি জনসচেতনতা বৃদ্ধি ছিল এই কার্যক্রমের মূলউদ্দেশ্য।

কার্যক্রমটিকে সাধুবাদ জনিয়েছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ রেয়াজুল হক। তিনি এই কার্যক্রমকে ব্যাপকভাবে চট্টগ্রাম শহরের ছড়িয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

নিউজ ডেস্ক, ফোকাস চট্টগ্রাম ডটকম

পরিবার ও দেশকে সুস্থ রাখতে ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরিধানসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। সৌজন্যেঃ দেশচিত্র ডটনেট।